Images Of Anti-Land-Grabbing Movement By Chittaprosad

Shubhendu Dasgupta
(Translation : Aainanagar Team)

Chittaprosad Bhattacharya (1915-1978) was a political artist, working closely with the Communist Party of India till late 1940s.

“This is an era of intensifying land-grab projects, undertaken by corporations and governments alike. This is also an era of intensifying anti-land-grab movements. Bhangor, Bhabadighi, Bolpur – these are just a few of the many places where the struggle goes on. Yet by no means can we claim this is entirely new. There were Singur and Nandigram, and many other such incidents; the history of land-grab projects on the subcontinent goes much, much further back.

We therefore provide this ping-back to Chittaprosad Bhattacharya’s artwork on the subject. These images, produced in the context of the land-grab projects of the 1940s, are compiled with brief captions of our own.” – Shubhendu Dasgupta

“এখন জমি নিয়ে আন্দোলন চলছে।

চাষিদের জমি নিয়ে নেওয়া আটকাতে চাষিরা লড়াই করছেন, লড়াই চলছে ভাঙ্গড়ে, ভাবাদিঘিতে, বোলপুরে, আরও নানা জায়গায়। চাষিরা জমি নিয়ে নেওয়া আটকাতে আন্দোলনে এখন।

এমনটি এখন হচ্ছে, এমনটি আগেও হয়েছে সিঙ্গুরে, নন্দীগ্রামে, তারও আগে। চাষির জমি নিয়ে নেওয়া হয় নানা অজুহাতে।

এমনই বিষয় নিয়ে ১৯৪০ দশকের নানা সময়ে ছবি এঁকেছেন চিত্তপ্রসাদ। আমরা ছবিগুলো সাজিয়ে নিলাম একসাথে।” – শুভেন্দু দাশগুপ্ত

One of the many excuses used to steal land from the farmers: making a factory.

চাষির জমি নিয়ে নেওয়া নানা ছুতোয়। একটা ছুতো কারখানা বানানো।

 

There are other excuses too : power plants, military camps and the like.

অন্য অন্য ছুতোতেও, বিদ্যুৎ বানানো, সামরিক ছাউনি বানানো, এমন সব।

The factory is built on the farmer’s land. But the farmer doesn’t get to work there. He is pushed off its grounds.

চাষির জমিতে কারখানা বানানো হয়। চাষি তাতে কাজ পান না। তার বাইরে থাকেন।

The farmer has no other way to survive than migrating to the city.

চাষি বাধ্য হন পরিবার নিয়ে শহরে চলে আসতে।

Maybe working as a rickshaw-puller.

চলে এসে কখনও রিক্সা চালান।

Carries goods.

কখনো মাল তোলেন, মাল বয়ে যান।

Carries them on, eternally.

মোট বয়ে চলেন।

Sometimes he chooses another way to live: to fight back, to reestablish his rights over his land.

আবার রুখেও দাঁড়ান। চাষি তার জমিতে, চাষে থেকে যেতে চান বলদ, লাঙল, শস্য নিয়ে।

He fights as a part of a peasant collective.

রুখে দাঁড়ান দল বেঁধে।

Members of the collective might be assaulted or even murdered by the government or the land-owners.

চাষিদের এই রুখে দাঁড়ানোকে আঘাত করে সরকার, জমির মালিক। চাষিরা মারা যান।

But they do not despair. They firmly stand their ground. And one day the assaults stop; their attackers retreat.

মার খেয়েও দমে যান না চাষিরা, এক জায়গায় দাঁড়িয়ে পড়েন শক্ত হয়ে। আন্দোলন গড়ে তোলেন। আটকে দেন মার।

However powerful they once may have been.

যে কোনও মার।

The farmers then rule their rulers out, defy their oppressors.

চাষিরা উড়িয়ে দেন তাদের উপর চেপে বসা শাসকদের, নানা ধরনের শোষকদের।

These images speak of an ongoing battle.
Chittaprosad is as relevant today, as he was then.

এ এক চলতে থাকা লড়াই। তখনও, এখনও।
চিত্তপ্রসাদের আঁকা তখনকার ছবি এখনও সত্যি।

One thought on “Images Of Anti-Land-Grabbing Movement By Chittaprosad

  1. Pingback: Content & Contributors – May 2017 | aainanagar

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s