ইশ কি কুল!

স্মৃতি ভট্টাচার্য মিত্র 

যুক্তাক্ষরটা তখনও অবনীর সড়গড় হয়নি। তাই কেউ যখন জিজ্ঞাসা করতো ‘তোমার ইশকুলের নাম কি?’ অবনী নিজের ছন্দে এবং দ্রুত লয়ে বুকে হাত দিয়ে বলে যেতো ‘ছাত্তমঙ্গল /  অবনী মোহন / সিতি / পাক পাথমিক / বিদ্যালয়।’ বাকি বুঝে নেবার দায় প্রশ্নকর্তার। ও শুধু অবনী মোহন বলার সময় ‘আমার’ বোঝাতে বুকে হাত রাখতো।

ইশকুলের আবার মালিক হয়, তার আবার ‘আমার তোমার’ হয় এসব তো অবনীর জানার কথা না। শুধু জানে ‘এটা আমার ইশকুল’। তাই তো ওর নাম অবনী। তাই তো ইচ্ছে হলেই জগবন্ধুদার (যার বয়স তখন আনুমানিক ষাট) ঘরে চলে যেত ও।

Continue reading