সিদ্ধার্থ বসুর কবিতা

সিদ্ধার্থ বসু ( জন্ম ১৯৮০); স্কুল শিক্ষক। মূলত কবিতা লেখার দিকে ঝোঁক আছে। এছাড়াও অন্যান্য লেখালেখির চেষ্টাও করে থাকেন।

ইতিহাস

পুলিশের তূণে থাকে টিয়ার গ্যাস, পুলিশী অভেদ বর্ম লাঠি
পাব্লিক অস্থির হলে মৃদুমন্দ, শাসক নাড়েন কলকাঠি

বিচলিত জনতার মাথা ফেটে ফিনকি দেয় লাল
পিঠ কেটে, উরু কেটে বসে যায় প্রশ্রয়ের দাগ
বাতাসে খবর ওড়ে, ভাইবন্ধু, সামাল সামাল
ফুলের মতন যুদ্ধ, ভেসে যায় রক্তাভ পরাগ

অমান্য করেছি যাকে, তার হাতে আছে হাতিয়ার
যাকে অবিশ্বাস করি, কাঁধে কাঁধ মিলিয়েছি তার
সুপ্রাচীন এ লড়াই চিরায়ত অপরিণামের
নবান্নের রঙ লাগে যশোর রোড-সিংগুর-ভাঙড়-নন্দীগ্রামে

*

পাহাড়ে

১.
চালিয়েছি আনকা গুলি
পড়েছে দু-তিনটে লাশ
তা বলে কি জঙ্গী হবে?
গণতন্ত্রই তো, সাবাস

২.
বরফে টাটকা রক্ত দাগ রেখে যায়
স্বদেশ মিছিলে চলে ছিন্ন হাতে-পায়

৩.
আমি তোমাকে খুবলে খাব, তুমি আমার কামড়ে নেবে টুঁটি
নেই আমাদের নুন-ভাত-জল-রুটি

৪.
ফিরে এসো, অস্থির হোয়ো না
গণতন্ত্রে অন্ধকূপ আজও খালি আছে
তোমাদেরই কথা ভেবে দু-চারটে নাছোড় বুলেট,
বেফায়দা বিপথগামী হয়ে পড় পাছে

৫.
আমাদের দেশ, আমার পাহাড়, আমাদের চা-বাগান
গুলির আওয়াজে মিশে যায় ওই আমার পাখির গান

*

Continue reading